Grid View
List View
  • saanjhbati 39w

    এই তো জীবন

    সময়ের গতিপথে ফিকে বহু বসন্ত
    ক্যানভাস বর্ণহীন, সাদা অলিখিত ফলক।
    সাজানো কাঁচের পৃথিবী দুমড়ে মুচড়ে খন্ডবিখণ্ড শব্দদহনে।
    অনুভূতিরা ক্লান্ত, ভাবলেশহীন।
    কালবৈশাখীর দমকায় স্মৃতি দিশেহারা।
    হঠাৎ একঝাপটা তুমুল বৃষ্টি আছড়ে পড়ে রুক্ষ ধুলোর প্রান্তরে।
    নির্জীব মনে সজীবতা,শান্তিবার্তা।
    খোলা জানালা দিয়ে ভেসে আসে স্বস্তির সৌরভ
    ভাঙ্গা, গড়ার নিরন্তর সংগ্রাম আজীবন ধরে।
    কখনো আবাহন, কখনো বিসর্জন
    কখনো সাদর সম্ভাষণ,কখনো উপেক্ষায় বর্জন,
    এই তো জীবন। ।

    অন্তরা সরকার

  • saanjhbati 39w

    আমার গ্রাম

    দুই পাহাড়ের ঘেরাটোপে ,
    সবুজ,শান্ত ছোট্ট উপত্যকা,
    রডোডেনড্রণ এর সৌন্দর্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গ জুড়ে।

    সুদূরে ভেসে আসে ঝর্ণার শব্দ তরঙ্গ
    যেন কোনো এক কিশোরীর প্রাণোচ্ছল হাসি।
    সুপ্রভাতী সঙ্গীতে সুর বাঁধে নীল পাখির দল।
    আঁকাবাঁকা পথে বয়ে যায় ছোট নদী।
    গুরুগম্ভীর পাহাড়কে কুর্নিশ জানায় পরদেশী মেঘ।

    পথের বাঁকে ইউক্যালিপ্টাসের পাতায় পাতায়
    ফাগুনের আগুন ,
    স্মৃতির মণিকোঠায় সগর্বে সঞ্জীবিত ফেলে আসা কৈশোর,
    বহুদিন দেখা মেলেনি আমার ছোট্ট সেই গ্রামের,
    ইচ্ছেরা সুর বাঁধে কান্নার সাথে,
    আকুল পিপাসার্ত দুটি চোখ,
    খুঁজে বেড়ায় দুরন্ত যৌবন কে,
    পাইনের সারি শুধু এই আবেগ জানে।।

    অন্তরা সরকার

  • saanjhbati 40w

    আগামীর স্বপ্ন

    চৈত্র শেষে রাঙা আলোয় বৈশাখের আবাহন,
    প্রখররুদ্রর তেজ সন্তাপে ভগ্ন স্মৃতির দহন।
    আগামীর স্বপ্নডালায় নতুন বর্ষবরণ,
    আজ বিবর্ণ বিষাদের ছায়া,এ কেমন ছন্দপতন!
    রিক্ত মানবজমিন, বিভীষিকা বিশ্বমাঝে।
    অতিমারি কালো মেঘে, কালবৈশাখী সাজে।
    চৈত্র অবসানে, সমাপন হোক, জীর্ণ,দীর্ণ গ্লানি,
    কালের জয়রথে ,ব্যর্থ হোক করোনার জীবনহানি।
    নতুন বছর এসো নতুন করে,
    আঁধারের বুক চিরে আলোর ভোরে। ।
    অন্তরা

  • saanjhbati 42w

    মা

    পৃথিবীর ঝড় বুকে আগলে
    সন্তানকে দেখিয়েছিলে আলো,
    বাইরের তাপদাহে পুড়িয়ে নিজেকে,
    সংসারকে দিয়েছ শীতল ছায়া,,
    করুণার মূর্ত প্রতীক তুমি, আমার মা।।
    তোমার খুশিতে আমার পরম তৃপ্তি,
    তোমার হাসিমুখ পূর্ণিমার জোছ্না ধারা,
    তোমার শিক্ষায় আমি সদর্পে উজ্জ্বল,
    তোমার দীক্ষা আমার গৌরব।
    তোমার আঁচল ছায়ায় অনাবিল সুখ পাই।
    জীবনসায়াহ্নে এই কবিতায় তোমার,
    চরণ ছুঁয়ে যাই।

  • saanjhbati 42w

    ইচ্ছে

    একদিন গঙ্গার পাড়ে বসে সূর্যাস্ত দেখব আমরা,
    তোমার বুকে মাথা রেখে নিশ্চিন্তে রাত কাটাবো,
    তোমার ঠোঁটে ভিজবে আমার নরম পেলব ঠোঁটে ,
    তোমার শরীরে খুঁজে নেবো আমার মনের ঠিকানা,
    হাতে হাত রেখে ভিক্টোরিয়া অথবা ময়দান,
    কোনো পাঁচতারা র কফি নয়,
    খোলা আকাশের নিচে,এক সস্তার চায়ের কাপে চুমুক দেবো,
    হঠাৎ একঝাঁপটা বৃষ্টি এসে ভিজিয়ে দেবে আমার শরীর,
    তোমার অপলক দৃষ্টি তে তড়িৎ খেলবে মন,শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ জুড়ে।
    যাবে কি আমার সাথে আমার ইচ্ছের দেশে, চলোনা যাই?
    দেখো,তোমায় কেউ ডাকছে, ডাকলো কেউ......
    অন্তরা

  • saanjhbati 43w

    তুমি এলে তাই

    তুমি এলে তাই,
    বসন্ত নিজেকে উজাড় করে
    রঙ ছড়িয়ে দিল আমার সত্তাজুড়ে।
    খাঁচার ভিতর অচিন পাখি উড়ে গেল অজানা বাগিচায়।
    অমানিশায় আকাশে ধ্রুবতারা জ্বলে।

    তুমি এলে তাই,
    রূপকথারা কাব্য থেকে জেগে উঠে ,
    ইচ্ছের দল ডানা মেলে উড়ে যায় সুদূর দিগন্তে,
    হাসনুহানা হেসে ওঠে আমার ছন্দপতনে,
    বহুদিন পর কোপাই নদীর পাড়ে সূর্যাস্ত বড়ই ভালোলাগে।

    তুমি এলে তাই,
    সাদা পাতায় শব্দের মিছিল
    বাতাসের সাথে তোমার আলতো ছোঁয়া ,
    নদী সাগরসঙ্গমে আত্মহারা,
    সারেঙ্গী বেজে যায় মনের গহীনে,
    ভালোবাসার সংজ্ঞা তবে, তোমার ভালোয় বাস
    এবারে,আমি তৃপ্ত, সম্পূর্ণ
    শুধু তুমি এলে তাই ।

    অন্তরা সরকার

  • saanjhbati 44w

    উপহার

    কেউ কথা রাখেনি, কেউ কথা রাখেনা।
    তবু মুঠোফোনে প্রেমের আস্ফালন,
    রাতে সুরের ছন্দ, তোমাকে ঘিরে শতস্বপ্নের ভিড় ।
    শব্দেরা বাসা বাঁধে মনের গহীনে,
    মন কত কিছু বলতে চায়,
    ডুব দেয় তোমার ইচ্ছের দেশে,
    ভাসিয়ে নিয়ে যায় পালতোলা নৌকা
    অচেনা রূপকথার দেশে,
    যেখানে দুই মনের ঘরে বাতি জ্বলে রাতের নীরবতায়,
    স্বপ্নেরা মুখ লুকিয়ে হাসে,দিনের আলোয়,
    নিষ্ঠুর বাস্তবিক জীবনে তারা পরাজিত।
    কালো মেঘের ঘটা তোমায় আগাম বার্তা দেয়,
    কোনোদিন যদি ফিরে না চাও,
    কোনোদিন যদি দূরে সরে যাও,
    স্মৃতির পাতায় শুধু এক মুহূর্তে আমার নাম রেখো,
    সেই হবে আমার দামী উপহার।
    অন্তরা

  • saanjhbati 48w

    Pyaar ka ijhar

    Ek raha kam hai tumhare sath chalkar
    Ek janm kam hai tumhare sath rahekar
    Tumse hi zindegi, tumse hi khusiya,
    Tum se hi jina ,tumse hi marna
    Tum se hi suru din,tum se hi khatam raat,
    Har din rangeen hai,tumhare muskurana dekhk
    Har pal jeena hai,tumhare pass rahek
    Yeise dosti mein hum jeete rahe
    Tumhari samandar mein lehere bankar
    Yeise hi hum haaste rahe
    Diya mein tumhare baati rahekar,
    Hum e milna hi tha humdum,
    Har raha guzarke..................

    Antara

  • saanjhbati 48w

    Dil to hai dil

    Ek gulab chahti thi,koi kimti tofaa nhi,
    Ek lamha chahti thi,pure din nhi,
    Kuch pal chahti thi,puri zindegi jisme kayed ho
    Bass ek jhalak chahti thi,jisme tumhare muskurahat ho.
    woh sham baht rangeen the,tumne rang dekhi nhi
    Bechain thi meri bhigi ankhen,tumne padaa nhi
    Par kise pata,kise khabar
    Woh toh rangeen dhoka tha,jiska koi kadar nhi
    Woh kahani jhuti thi,jiska koi mol nhi
    Fir bhi ankh mein ansu hai,man mein talash
    Kyu mein kaach ko heera samajha
    Mere paas aaj bhi nhi jabab

    Antara

  • saanjhbati 51w

    Dristikon

    Dur paharki kinare ek purana pathaar tha
    Bachpan mein baht khubsurat lagte the
    Jab bhi dil karte,usko lekar khelte the,
    Uss par khara rahenke kabhi kabhi
    Jhil ki soundarta dekhte the
    Bahat din baad ,aaj uhan gayi
    Yaddoin ki barish ne akhon bhiga diye
    Kinare pe pouche toh paaon pichle
    Humne sochi,ki bachpan ki tarah uske sahare hum banchenge,
    Par woh tuta hua tha,toh uski sahare bachha na mumkin tha
    Uske paas aur bhi ek pathar the,humne usko har baqt najarandaz kiye
    Woh aaj bhi bilkul yeisa hi the,jeisa pehele dekhi thi
    Unke sahare hum baach Gaye
    Duniya bhi toh yeisa hi hai
    Jo pehle se haaasin,khabon mein rangin
    Asliyat mein kaanch hain,jo kisiko dard deta hai
    Aur jo dil se zinda,dekhne mein berangin
    Woh humesha heera hai,jo dushro ko jeena sikhati hai.

    Antara