Grid View
List View
Reposts
  • kkbiswas 7w

    আমার মাথার ভেতর অ- ধর্মটা রাগে
    গজগজ করতে করতে আমাকে
    পিছনে নিয়ে যেতে লাগলো।
    অনেকদিন তো হলো আর কত নিরামিষ
    খাবার খাবো, এভাবে কি বাঁচা যায়?

    আমি কি এমনি এমনি সৃষ্টি হয়েছি?
    অট্টালিকায় বসে বসে শুধু সাহিত্য লিখব?
    প্রেমের কবিতা লিখব? বিশ্ব শান্তির কথা বলব? তাহলে তো নিস্তেজ হয়ে যাব!
    তাহলে তো আমার গর্জন থমকে যাবে!
    আমার প্রতি মানুষের আর আনুগত্যই থাকবেনা।।

    না। না। এভাবে আমার অ- ধর্মটাকে আমি সমাধি বানিয়ে রাখতে পারবনা । আমার চাই রক্ত, মাংস এবং আমার সৃষ্টিকর্তার মৃতদেহ।

  • kkbiswas 8w

    মানুষের ভর আছে,
    রক্ত, মাংস, হৃদয়ে বল আছে,
    মানুষ অনুভব করে, মানুষ আছে,
    মানুষ বর্তমান, মানুষ পদার্থ।

    মানুষের শরীরের 60 ভাগই জল,
    স্থল- জলের হিসাবে পৃথিবীরই তুল্য,
    মানুষ অমূল্য জিনিষ, প্রকৃতির সমতুল্য,
    মানুষের মতই প্রকৃতি পদার্থ।

    শ্বাস আছে, বাতাস আছে,
    রাগ আছে, ঝড় আছে,
    লড়াই আছে, বিপ্লব ও আছে,
    চেতনা আছে, ভারসাম্য আছে প্রকৃতির গতি প্রকৃতির।

    মানুষ যেমন রবীন্দ্রনাথ হয়,
    প্রকৃতির তেমন হিমালয় ও হয়,
    মানুষ যেমন হিটলার ও হয়,
    প্রকৃতির তেমন সুনামি ও হয়।

    নজরুল যদি সাম্যের গান গায়,
    তবে সূর্য সাম্য বিতরণ করে রোজ,
    চাঁদ যদি হয় স্নিগ্ধতা,
    তবে রবীন্দ্রনাথ মুগ্ধতা।

    তবে আজ একি দেখি!
    অসাম্য অট্টালিকা ছুঁয়েছে,
    প্রকৃতি ভারসাম্যহীন
    নিঃস্ব হয়ে যায় বুকভরা সম্পদ,
    মানুষের সাথেই ক্রমশ মৃত্যুমুখী।

    কৌশিক
    ©kkbiswas

  • kkbiswas 8w

    প্যান্ডেলে প্যান্ডেলে যে দূর্গা,
    আলোর উচ্ছলতায় ঝলসে ওঠে তার যে বৈভব, অর্থের ভাবধারায় বাঙ্গালীর হাত ধরে
    এই শরতে তার এই যে আগমন তাতে ধনী- দরিদ্রের পার্থক্যটা প্রকটভাবে উপস্থাপিত হয় বঙ্গের সমাজ ব্যবস্থায়। একটা সুউচ্চ অট্টালিকার পাশে তার চেয়ে অনেক উঁচু খোলা আকাশের নিচে আটকে থাকা মানুষগুলো অনেক বেশী চোখের অন্তরে আটকে যায় এই উজ্জ্বল উৎসবের আলোর ধারায়। একটা আধুনিক শরীরের মধ্যে একটা মধ্যযুগীয় ব্যবধান আজ ও ঘুচল না, বরঞ্চ বেড়েই চলেছে।
    মানুষে- মানুষের এই অতিরিক্ত অর্থনৈতিক ব্যবধান মানুষকে সামগ্ৰিক ভাবে অসাধু, লোভী,হিংস্র, ক্ষমতালিপ্সু করে তুলেছে, যা সমগ্ৰ মানবসমাজের জন্যে ক্ষতিকারক।
    হয়ত একদিন আসবে যখন সমগ্ৰ মানবসমাজের পরিণতি ধ্বংস ছাড়া অন্যকিছু হবেনা।

  • kkbiswas 9w

    তোমার মূল্যগুলো ছড়িয়ে যাক
    আমাদের অন্তরে অন্তরে,
    বাহিরে প্রকাশ হোক, ছড়িয়ে পড়ুক
    মানুষের মাঝে, যেখানে আগেই বাসা বেঁধে
    আছে সভ্যতার নোংরা অন্ধকার গুলো।

    বেশী জ্ঞানীর চেয়ে কমদামী সত্যিকারের মানুষের বড় প্রয়োজন আজ। পৃথিবীকে যদি
    বাঁচতে হয়, পৃথিবীকে যদি বাঁচাতেই হয় তবে জ্ঞানীর চেয়ে মানুষের প্রয়োজন বেশী।

  • kkbiswas 9w

    ফিরে যাবো বলে এসেছি গো,
    নিভে যাবো বলে জ্বলেছি ।
    কিছু রেখে যাব বলে পথ খুঁজি গো,
    চলে যাবো বলে নীড় এসে বাঁধা পড়েছি।

    বার বার ছুঁয়ে দেখি পৃথিবীর মাটি,
    যার প্রতিটি বিন্দু, বিন্দুতে বিন্দুতে আমি হাঁটি।
    সেখানেই মিশে যাব একদিন আমি,
    সেই পৃথিবীতে রেখে যেতে চাই
    একটি রক্তবিন্দু, যেটা হবে দামী।

  • kkbiswas 10w

    আমি খাই। সব খাই।
    তোমাকে খাই । তোমাকে চেটে ও খাই।
    তোমাকে চিবিয়ে খাই। তোমাকে মেরে ও খাই।
    তোমার ভাবনাকে খাই।তোমার চেতনাকে ও খাই।তোমার প্রেরনাকে খাই। তোমার গভীরতাকে ও খাই। আমি বুদ্ধিমান! মানুষেরই আকার!

    আকাশের নীল পথ । যেখানে মেঘেরা ভাসে।
    ক্লান্ত শরীর । যেখানে ঘামেরা ভীড় করে।
    শান্ত মন । যেখানে প্রেম এসে কথা বলে।
    শায়িত শব। যেখানে নীরবতা ভীড় করে।
    সেখানেও আমি। সাইন বোর্ডে । আমি বুদ্ধিমান !মানুষেরই আকার!

    সেদিন রান্না ঘরে। সেদ্ধ চাল যখন কথা বলে।
    সেদিন চাষীর কর্মক্ষেত্রে। চাষীর লড়াই যেখানে গড়াগড়ি খায়। সেদিন কারখানায়। যেখানে শ্রমিকের শ্রম সেদ্ধ হয়।সেখানেও আমি। বিজ্ঞাপন! আমি বুদ্ধিমান! মানুষের আকার।

    সেদিন ফুটপাতে শায়িত মানুষ খুঁজেছিলো আমাকে, পায়নি।।

    সেদিন চাষীরা লড়াই করছিল একটু ভালো থাকার জন্যে, খুঁজেছিলো আমাকে, পায়নি।।

    সেদিন ওরা জীবন যন্ত্রনায় ছটপট করছিলো
    খুঁজেছিলো আমাকে। পায়নি।

    সেদিন আমি রাজ শয্যায়, রাজার মুকুটে,
    শাসকের অধিকার অর্জন করে রাজা হয়ে গিয়েছিলাম।

  • kkbiswas 10w

    ছেড়ে গেলাম,
    রেখে গেলাম,
    পথ নয় অন্ধকার।
    আমি সভ্যতা।

    কেড়ে নিলাম,
    রেখে গেলাম,
    সভ্যতা নয় অন্ধকার।
    আমি সভ্যতা।

    পথে ছিলো অনেক আবিষ্কার,
    এসেছিল রবীন্দ্রনাথ, এসেছিলো আইনস্টাইন,
    বিবেকানন্দ,ম্যাক্সিম গোর্কি, পাবলো নেরুদা,
    শ্রী চৈতন্য, লক্ষ মানবিক মানুষ,
    তার চেয়েও বেশী পথে এসে ভীড় জমিয়েছে
    কোটি কোটি অমানুষের দল,
    আমি সভ্যতা! তার চেয়েও বেশী অন্ধকার।।
    আমি সভ্যতা!! তার চেয়েও বেশী অন্ধকার।।

  • kkbiswas 13w

    মানুষ দেখতে কেমন? তুমি যদি জানো। জানিও। আমার দেখাটা অস্পষ্ট, যান্ত্রিক,
    অপরিচ্ছন্ন, হয়ত বা মানুষ শব্দের মর্মার্থ আমার দ্ধারা আজও উপলব্ধ হয়নি।

    আমি আজ ও বুঝিনি শিরদাঁড়া সোজা,
    পরিচ্ছন্ন সভ্যতার পোশাকে, উন্নততর
    অবস্থায় দেশে দেশে শাসকের চেহারায়
    যে নগ্ন ধ্বংসাত্মক রূপ দেখছি তা কি
    মানুষের উন্নততম সংস্করণের স্বাভাবিক পরিণতি।

    আমি আজ ও বুঝিনি জ্ঞানের আড়ালে
    বিজ্ঞানের এই ধ্বংস ধ্বংস খেলা,
    ধর্মের আড়ালে মানুষের এই রক্ত রক্ত খেলা,
    বিত্তের আড়ালে মানুষের এই দান দান খেলা,
    এটাই কি এগিয়ে চলা সভ্যতার স্বাভাবিক ছলনা। এটাই কি এগিয়ে চলা সভ্যতার নিষ্ঠুর অভিব্যক্তি।।

    উন্নত মানুষ কি তবে অবনত মানবতা!
    উন্নত মানুষ কি তবে অবনত মানবতা!

  • kkbiswas 19w

    জোৎস্নালোকে,তারাদের সাথে তার নিয়ে মরণপণ লড়াই,সভ্যতার আবিস্কারের আলো হয়েছে সাথী,তবুও আঁধারের গভীরতার একটুও হয়নি বদল।

    কিন্তু সূর্য একা, সাথে নেই, পাশে নেই,
    আধুনিক পৃথিবী! না। হে। কেহ তার
    নয়। তুবু ও একা হাতে গোটা পৃথিবীকে
    দান করে একটা একটা করে আলোর দিন।

    একটা দশরথ মাঝি চাই,
    বদলে দেবে রক্তে, শরীরে জীবনের সঙ্গা,
    বদলে দেবে সংগ্ৰামের পথ,
    একা, একাই পারে বদলে দিনে উন্নয়নের
    অভিধান।। একা একাই জবাব দেবে
    অনন্তকাল ধরে বহে চলা অবহেলার।
    বদলে দেবে ইতিহাসের পাতাও।


    বদলে দেবে। হ্যাঁ বদলে দেবে।
    প্রেমের সেরা বিজ্ঞাপন তাজমহল নয়।
    তাজমহলের অন্তরে লুকিয়ে দীর্ঘ শোষনের ইতিহাস। শাসকের কদর্য অত্যাচার।
    প্রেমের সেরা বিজ্ঞাপন ১১০ মিটার দীর্ঘ, ৯.১মিটার প্রস্থ, ৭.৬ মিটার দীর্ঘ আর
    ২২ বছরের এক সত্যিকারের বিপ্লবীর
    নিরলস সাধনা। এক সত্যিকারের মানুষের
    গল্প। এক সত্যি সত্যি চেতনার উন্মোচন।

  • kkbiswas 19w

    এত রাত আগে তো দেখিনি।এতটা গভীরে আগে আমি ডুবিনি।এত কালো যে আঁধার হয় বুঝিনি।চাঁদ নেই, তারা নেই, মেঘে ঢাকা। কারা যেন তবু আনন্দে আত্মহারা!

    পথ দেখানোর আলো গুলোর হাতে কারা যেন গুঁজে দিয়ে গেছে হেমলক বিষ!আজ সমস্ত সক্রেটিসদের মৃত্যু হবে।পৃথিবীর এক ক্ষুদ্রতম মানবগোষ্ঠী ওরা।পৃথিবীকে আলো দেয়, ভাষা দেয়, পথ দেখায়।বিনিময়ে ওদের হাতে শাসকের দেওয়া বিষ!

    পৃথিবী আবার স্থির হবে।
    আবার গ্যালিলিওর জ্ঞান বন্দী হবে।
    আবার জাগরিত হবে বিষাক্ত অজ্ঞানতা।
    আবার অন্ধকার। শাসকের বর্বরতা।
    মধ্যযুগ ঐ আসে হায়!
    মধ্যযুগ ঐ আসে! ঐ আসে হায়!